Business

টি-শার্ট ডিজাকরে ইনকাম করুন (best t shirt design)

বর্তমান সমাজে কিন্তু এখন টিশার্ট  ডিজাইন অন্যতম একটা অনলাইন পেশা হিসেবে সকলের কাছে বেশ পরিচিত   আপনাদের কি মনে হয় যে  আমাদের দেশ থেকে টিশার্টের ব্যবহার করা উঠে যাবে  না সেটা কখনোই হবে না  বরং টিশার্টের ব্যবহার প্রতিনিয়তই বাড়তে থাকবে  টি-শার্ট ডিজাকরে ইনকাম করুন (best t shirt design)-

টি-শার্ট ডিজাইন করে ইনকাম করুন (best t shirt design)

একটাজিনিস লক্ষ্যকরে দেখেনতোবর্তমান সময়আপনারা যেসকল ধরনেরটিস্যুর দোকানে দেখেথাকেন সেসকল টিশার্ট কিন্তু আজ থেকে  বেশ কয়েকবছর আগেএর কোনোকিছুই কিদেখেছেন রকমেরডিজাইন কিকোন সময়দেখেছে নাকিআগে  ?  কখনই সেটাদেখেন নাই  আসলে বিষয়টাএরকম যেবর্তমান সময়ে অনেকধরনের ডিজাইনেরকারণেই কিন্তুএখন বিভিন্নধরনের টিশার্ট  বাজারেচলে এসেছে  আর এইসকল শার্টগুলোএর ভিতরেসবথেকে আকর্ষনীয়ডিজাইন গুলো  কিন্তু মার্কেটেসবার প্রথমস্থান দখলকরে নিয়েছেঅন্য সকলকোম্পানিকে পিছনে ফেলেতারা মার্কেটেপ্রথম স্থানদখল করেনিতে পেরেছে 

টি-শার্ট ডিজাকরে ইনকাম করুন (best t shirt design)

 অনেকসময় অনেকধরনের ডিজাইনকিন্তু অনেকউপলক্ষের জন্য অনেক  সময়তে  কিন্তু বাজারেআসে   একটা ডিজাইনসামান্য কয়েক দিনেরজন্য হলেওকিন্তু সেটামার্কেটপ্লেস দখল করলেওসেটা দীর্ঘস্থায়ীভাবে  দখল করবারজন্য কিন্তুআমাদেরকে অবশ্যই সেটারডিজাইন বারবারপরিবর্তন করে নেওয়ালাগবে। অনলাইনজগতে  আর তারসাথে সাথেডিজিটাল মার্কেটপ্লেসগুলোতে   অনেক ধরনেরকাজ রয়েছেসেগুলো কিন্তুসব সময়বিদ্যমান থাকে বর্তমান সময়ে কিন্তুএই ধরনেরডিজিটাল কাজগুলো এরভিতরে আপনারাদক্ষতা অর্জনকরে নিতেপারেন খুবসহজেই ঘরেবসে টিশার্ট  ডিজাইনের কাজ করারমাধ্যমে কিন্তু আপনারাখুব সহজেইকরতে পারবেনটিশার্টডিজাইন করেআপনারা কিভাবেআয় করবেনসেই বিষয়গুলোসম্পর্কে আজকে আমাদের  এই লেখার  ভিতরে আপনাদেরসঙ্গে আলোচনাকরব  

 


নিচে  আমি একটা লিস্ট দিয়ে দিচ্ছি সেটা আপনারা দেখতে পারেন – 

 

. অ্যামাজনের সাহায্যে  শার্ট ডিজাইন করা  

. লোকাল  যে কোন ব্রান্ডের জন্য ডিজাইন করে দেওয়া   

. বিভিন্ন ওকে শোনার  এর জন্য শাট ডিজাইন করে দিতে পারেন  

. নিজের পার্সোনাল  যেকোনো প্রতিষ্ঠানের জন্য স্বাধীন করতে পারেন  

. বিভিন্ন  অফার তৈরি করার মাধ্যমে কিন্তু আপনারা শাট ডিজাইন করতে পারেন  

 

উপরে যে বিষয় গুলো দেওয়া হয়েছে সেগুলো কিন্তু আপনারা  পলিসি হিসেবেও  দেখে নিতে পারেন ডিজিটাল মার্কেটপ্লেসে  আপনাদেরকে যদি টিকে থাকতে হয় তাহলে কিন্তু আপনাদের টিকে থাকার জন্য বিভিন্ন ধরনের অনেক  ধরনের পদ্ধতি আপনাদেরকে অবলম্বন করা লাগতে পারে   অনেক সময় দেখা যাবে যেআপনাদেরকে মার্কেটপ্লেসে টিকে থাকার জন্য অনেক সময় বিভিন্ন অফার দিতে হবে আর যেই অফার গুলোর মাধ্যমে আপনারা আপনাদের কে তাদেরকে আকৃষ্ট করতে পারবেন আর তার সাথে সাথে আপনাদের পণ্যগুলো মার্কেটপ্লেসে বেশ ভালো পরিমাণে চলতে থাকবে।টি-শার্ট ডিজাকরে ইনকাম করুন (best t shirt design) 

উপরে যে পাঁচটা  বিষয় সম্পর্কে আপনাদের সঙ্গে  বলেছি সেই পাঁচটা বিশে সম্পর্কে আপনারা আপনাদের নিজেদের সম্বন্ধে বর্ণনা করতে পারেন।  আর যার সাহায্যে কিন্তু আপনারা বুঝতে পারবেন যে, ডিজিটাল প্রোডাক্টটি টিশার্ট ডিজাইন এর মাধ্যমেও কিন্তু আপনার অনলাইন থেকে টিশার্ট  ডিজাইন এর মাধ্যমে কিন্তু আপনারা অনলাইন জগত থেকেকিভাবে আয় করতে পারবেন সেটা জেনে যাবেন।

 

. অ্যামাজনের টিশার্ট ডিজাইন করা– 

 

অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয় হলো যে  অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের  সাহায্যে কিন্তু আপনারা   অনলাইন থেকে ভালো পরিমাণে একটা  অর্থ করতে পারবেন ঘরে বসেই অ্যামাজন  এমন একটি কমার্স প্রতিষ্ঠান যেখানে কিন্তু প্রতিদিন প্রায় মিলিয়ন ইউজার ভিজিট করে থাকেন তাদের ওয়েবসাইটে। আর আপনারা যদি তাদের ওয়েবসাইটে একবারে স্থান করে নিতে পারেন তাহলেই হয়ে যাবে।  তাহলে কিন্তু আর আপনাদেরকে অন্যকোন মার্কেটপ্লেসে আপনাদেরকে কাজ করা লাগবে না  অ্যামাজনেই  আপনারা কাজ করতে পারবেন।  অবশ্য আপনাদেরকে একটা কথা মনে রাখতে হবে যেআমাজন মার্কেটপ্লেসে যদি আপনারা দেখতে চান তাহলে অবশ্যই আপনাদেরকেবেশ ভালো মানের দক্ষতা অর্জন করতে হবে তা না হলে এখানে টিকে থাকতে পারবেন না  

 

 দক্ষতা কিন্তু আসলে একদিনই আপনার  অর্জন  করে ফেলতে পারবেন নাকিন্তু তারপরও আপনারা যদি অ্যামাজনের  মতন বড় মার্কেটপ্লেসগুলোতে টিকে থাকতে চান তাহলে কিন্তু আপনাদেরকে একটা কিছু জানা লাগবে অবশ্যই বেশ কয়েকদিন আগে আমার জন্য তাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে কিন্তু  টিশার্ট ডিজাইন এর জন্য আলাদা একটা সেক্টর চালু করেছে তারা   

আর যেখানে আপনারা কিন্তু আপনাদের ডিজাইন করা জিনিসগুলো সেখানে উপস্থাপন করতে পারবেন খুবই সহজেই  আর সব থেকে বড় কথা হল যেআপনারা কিন্তু সেখানে আপনাদের ডিজাইন টা দেবেন আপনারা কিন্তু শার্ট বিক্রি করবেন না সেখানে   কোন কাস্টমার যদি আপনাদের ডিজাইন টা কে পছন্দ করে থাকেন তাহলে কিন্তু সেটা চিনতে যদি সে আগ্রহী হয়ে থাকে   তাহলে কিন্তু অ্যামাজন নিজেরাই অর্থাৎ তাদের নিজেদের প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে সেই ডিজাইনটা তৈরি করে সেই কাস্টমারকে সাপ্লাই করে দিবে। আর সেটা করার জন্য অবশ্যই আপনাদের ডিজাইন করা অর্থাৎ আপনাদের ডিজাইন   করা  যে টিশার্টটা কাস্টমার পছন্দ করেছে সেটা অবশ্যই তাদের নেওয়া লাগবে   আর তার জন্য কিন্তু তারা আপনাদেরকে একটি বড় অ্যামাউন্ট কমিশন দিবে   

 

 টি-শার্ট ডিজাইন করে ইনকাম করুন 

 

 

 এখানে আপনাদের কে একটি বেশি মনে রাখতে হবে যেঅ্যামাজনের  গিয়ে আপনাদেরকে অবশ্যই সেখানে মার্চেন্ট একাউন্ট খুলতে হবে একাউন্টের  মাধ্যমে কিন্তু আপনারা অনলাইন থেকে ভালো পরিমানে আয় করতে পারবেন আপনার সাথে সাথে আপনাদের ডিজাইন  কতজন  কী পরিমাণে কিন্তু সেই বিষয়গুলো কিন্তু আপনারা খুব সহজেই একটা পরিপূর্ণ ধারণা লাভ করতে পারবেন সেখান থেকে। 

 

 Read More-

অন পেজ এসইও শেখার বইটি ফ্রীতে ডাউনলোড করে নিন

পরিক্ষায় ভালো ফলাফল অর্জনের টেকনিক বইটি ফ্রিতে ডাউনলোড করে নিন

Never Stop Learning বইটি ফ্রিতে ডাউনলোড করে নিন 

 

তারাতারি ইংরেজি শেখার সহজ উপায় জেনে নিন

 আপনারা কিন্তু এখানে  আপনাদের কোন ফিজিক্যাল  কোন ধরনের প্রোডাক্ট Provide  করতেছেন না আপনি শুধু আপনাদের অনলাইনে বা ডিজিটাল একটি প্রোডাক্ট যে ডিজাইনটা আপনারা করেছেন সেটাকে শুধু  সাবমিট করতেছেন সেখানে।  আর এইরকম ভাবে যদি আপনার একশটা ডিজাইন তৈরি করে ফেলতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনারা সবগুলো ডিজাইন যদি আমাজন মার্কেট প্লেসে দিতে পারেন।  আর তার সাথে সাথে মাসিক কিংবা সাপ্তাহিক যদি কয়েকজন বড় বড় কোম্পানি প্রতিষ্ঠানের অথবা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী যারা রয়েছেন তাদের যদি পছন্দ করে তাহলে যদি তারা কিনে নেয়। তাহলে হয়তোবা দেখা যাবে যে সে কমিশন তাই আপনাদের একটা মাসিক বেতন হিসেবে কাজ করতে থাকবে। তাই আমি  আপনাদেরকে  ব্যক্তিগত   ভাবে বলতে চাই যে আপনারা কিন্তু অবশ্যই মার্কেটপ্লেসে খুব সহজেই কাজ করতে পারেন    

 

যদি আপনারা ভালো মানের একটা ডিজাইন তৈরি করতে পারেন তাহলে কিন্তু আপনাদের অবশ্যই এই ধরনের মার্কেটপ্লেসগুলোতে কাজ করলে অনেক বেশি দক্ষতা আর অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারবেন খুব সহজেই পরবর্তীতে অন্য সকল মার্কেটপ্লেসে কাজ করার জন্য অনেক সহজ হবে আর এই অভিজ্ঞতা আপনাদের থাকার জন্য   আপওয়ার্কএইবার আর তার সাথে সাথে ফ্রিল্যান্সার এর মত ওয়েব সাইটগুলোতে  কাজ করার জন্য কিন্তু আপনাদেরকে অবশ্যই এখানে দক্ষ হওয়া লাগবে তা না হলে এখানে কিন্তু আপনারা কোনদিনও কাজ করতে পারবেন না  

 

. লোকাল কোন ব্র্যান্ডের জন্য ডিজাইন করা

 

লোকাল   যে কোন ব্রান্ডের জন্য কিন্তু আপনারা কম  খরচেই তাদেরকে  ডিজাইন করে দিতে পারেন শুরুতে আপনারা যদি কম খরচে তাদের কাজ করে দেন পরবর্তীতে আপনার দেখতে পারবেন যে এইখান থেকে আপনাদের ভাল অর্ডার করছে তারা আর তার সাথে সাথে তারা নিয়মিতভাবে অর্ডারের কারণে আপনি এখান থেকেও ভালো আয় করতে পারতেছেন।  ডিজাইনাররা  কিন্তু আসলে মূলত ফিজিক্যাল কোন প্রোডাক্ট দেন নাতারা শুধু ডিজিটাল প্রোডাক্ট দিয়ে থাকে এবং এর মাধ্যমে আসলে মূলত তারা আয় করে থাকেন টি-শার্ট ডিজাকরে ইনকাম করুন (best t shirt design)

কেউ যদি আপনাদের ডিজাইনকে পছন্দ করে থাকে তাহলে কিন্তু পরবর্তী সময়  গুলোতে কিন্তু   আপনাদের মাধ্যমেতারা তাদের কোম্পানির ডিজাইন গুলো  করে নিতে চাইলে।  আর তাই কিন্ত আপনাদেরকে অবশ্যই লোকাল যে প্যান্ট গুলো রয়েছে সেগুলো সঙ্গে পরিচিত হতে হবে এবং তাদের মাধ্যমে আপনাদেরকে স্টেপ বাই স্টেপ আগাতে হবে   শুরু থেকেই কিন্তু আপনারা বড় বড় মার্কেটপ্লেসগুলোতে আপনাদের কাজ জমা দিতে পারবেন না চাইলেও পারবেন না   আপনাদেরকে ছোট ছোট মার্কেটপ্লেস যেগুলো রয়েছে অর্থাৎ লোকাল মার্কেটপ্লেস বলা হয়ে থাকে যাকে।  আর সেখান থেকে আপনাদেরকে অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে আর তার পরেই আপনারা সেখানথেকে অভিজ্ঞতা অর্জন করার পরে বড় বড় মার্কেটপ্লেস গুলোতে কাজ করতে পারবেন তার আগে নয়।

 

 

. অনেক  ওকেশোনের  রয়েছে তাদের জন্য টিশার্ট ডিজাইন করতে পারেন– 

 

অনেক ধরনের উৎসব অনুষ্ঠানে কিন্তু আমাদের দেশে সবসময় ভালো থাকি   মুসলিম ধর্মের যারা রয়েছে তাদের জন্য  ঈদ  আর তারপরে  হিন্দু ধর্মের মানুষদের জন্য পূজা এর  উৎসব  যখন হয় তখন কিন্তু   আপনারা আপনাদের  ডিজাইন গুলোকে  সাবমিট করে নিতে পারবেন খুব সহজে

কোন এলাকা এর  মানুষেরা কি রকমের  ডিজাইন পছন্দ করে থাকেন আর  কোন কোন দেশের মানুষ কোন কোন ডিজাইন পছন্দ করে থাকে  সেইদেশে সম্পর্কে কিন্তু আপনাদেরকে অবশ্যই পূর্ব থেকে অভিজ্ঞতা অর্জন করে নিতে হবে অবশ্যই   সেই জন্য অবশ্য কিন্তু আপনাদেরকে সেই এলাকা কিংবা সেই দেশের  সংস্কৃতি সম্পর্কে জানা লাগবে আর তাদের লাইফ স্টাইল সম্পর্কে আপনাদেরকে সম্পূর্ণ  ধারণা থাকা লাগবে   আর এই ভাবেই কিন্তু আপনারা বিভিন্ন সময়ে ডিজিটাল প্রোডাক্ট এর মাধ্যমে অনলাইন থেকে আয় করতে পারবেন

 

.নিজেদের  পার্সোনাল  যেকোনো প্রতিষ্ঠানের জন্য টিশার্ট ডিজাইন করতে পারেন– 

 

শুরুর দিকে আপনারা অনেক প্রতিষ্ঠান কাজ করে থাকলেও কিন্তু একটা সময় আপনাদের নিজেদের একটা প্রতিষ্ঠিত হবে    সেই প্রতিষ্ঠান কিন্তু আপনারা আপনাদের দিনগুলো কি দিয়ে বড় করে নিতে পারবেন।  আমি অনেক জনকে চিনি যারা তাদের   ডিজাইন গুলোকে তাদের শোরুম দিয়ে  তারা বেশ ভালো পরিমাণে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন  বর্তমান সময়ে কিন্তু এখন কয়েকটা আউটলুক  তৈরি হয়ে গিয়েছে   এটা কিন্তু আসলে কয়েকদিনের ভিতরে সম্ভব হয়নিএটি দীর্ঘদিন এর জন্য  অনেক ধরনের ডিজাইনের তার সাথে সাথে অনেক ধরনের চেষ্টার মাধ্যমে হয়েছে আসলে আপনারা চাইলে কিন্তু এই কাজটা আজকে থেকে শুরু করে দিতে পারেন   আর এই কাজটা করার জন্য কিন্তু আপনাদের কেউ বসে দক্ষতা অর্জন করা লাগবে আর তার সাথে সাথে কিছু  এক্সট্রা অর্ডিনারি  ডিজাইন তৈরি  করা লাগবে


. বিভিন্ন অফার তৈরি করার মাধ্যমে টিশার্ট ডিজাইন তৈরি করতে পারে  – 

 

আমরা সকলে কিন্তু কম দামের জিনিসগুলো আর বেশি ওপারে জিনিসগুলোকে বেশি মূল্যায়ন করে থাকি অনেক ধরনের   কমার্স সাইটগুলো রয়েছে  তাদের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অফার দিয়ে কিন্তু তারা মানুষদের কাছে বেশি পরিমাণে সেই ধরনের পণ্যগুলোকে কিনতে থাকে। আরে এসকল বিষয় বিবেচনা করে কিন্তু আপনাদেরকে মার্কেটে টিকে থাকার জন্য অফার দিতে হবে, আপনার কমার্স  ওয়েবসাইটের জন্য কিংবা আপনারা যে ডিজাইন তৈরি করছেন সেই ডিজাইনটি মার্কেটে ভালোভাবে চলার জন্য  

আজকে আমি আপনাদের এই আর্টিকেলের ভিতরে আপনাদের সঙ্গে পাঁচটি বিষয় সম্পর্কে অর্থাৎপাঁচটি বিষয় এর মাধ্যমে  আপনাদেরকে অথচ আপনারা আপনাদের ডিজিটাল প্রোডাক্ট প্রিসেট ডিজাইনের মাধ্যমে অনলাইন থেকে আয় করে নিতে পারেন  

আর তাছাড়াও কিন্তু আরও অনেক উপায় রয়েছেকিন্তু সব থেকে সহজ আর সবথেকে ভালো আপনাদের জন্য পারফেক্ট পদ্ধতি আমি আমার আজকের এই লেখার ভিতরে   বিস্তারিত ভাবে বর্ণনা  করার চেষ্টা করেছি হাসা কইতাছি যে আপনারা যদি উপরের বিষয়গুলো বুঝে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনারা এই বিষয়ে কাজ করতে আগ্রহী হবেন আর তার সাথে সাথে আপনারা আপনাদের দক্ষতা অর্জন করবেন আপনাদের সকলকে অনেক ধন্যবাদ আপনাদের মূল্যবান সময় দিয়ে আমাদের আজকে এই  আর্টিকেলটি পড়ার জন্য   

 

তথ্যসূত্র –  অনলাইন টেক  ইনফর্মেশন 

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button